শহীদ বেদীতে জুতা পায়ে নাচ-গানে বিজয় উৎসব!

ঠাকুরগাঁও জেলা স্কুল বড় মাঠ শহীদ মিনারে বিজয় বরণ ও সুবর্ণ জয়ন্তী উৎসব অনুষ্ঠানে জুতা পায়ে বেদীর উপর নেচে গেয়ে বিজয় দিবস উদযাপনের ঘটনা ঘটেছে। সে ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে সমালোচনার ঝড় উঠে। শুক্রবার (১৭ ডিসেম্বর) সন্ধ্যার পর থেকে কর্নেট সাংস্কৃতিক সংসদের আয়োজনে এক গানের অনুষ্ঠানে রাত ৮ টার পর থেকে জুতা পায়ে বেদির উপর গান গাওয়ার ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়।

তাৎক্ষণিক ফেসবুক পোস্টে অনেকে বিভিন্ন রকম কমেন্ট করে জুতা পায়ে বেদিতে ওঠার ধিক্কার নিন্দা জানান। এম সফিক তুষার নামে একজন ক্ষোভ নিয়ে বলেন “দেখার কেউ নেই”। নাহিদ রেজা নামের একজন কমেন্ট করেন “বুঝলাম নাহ বিষয়টি….বিবেক বলতে কি কিছু নেই কারো।

কর্নেট সাংস্কৃতিক সংসদের আয়োজনে এই অনুষ্ঠানটি করা হয়েছে যতোটা জানি। তারা কি বুঝলোনা। শহীদ মিনারে জুতা পায়ে উঠে গান বাজনা করা হলো। “আমি মনে করি শহীদদের অপমান করে জুতা পায়ে মিনারে উঠা মানে একটা জাতিকে অপমান করা” যাদের জন্য আমরা কথা বলতে পারছি, যাদের রক্তের বিনিময়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করতে পারি তাদের জন্যই আমরা নিজেকে পরিবর্তন করতে পারব না কেন?

এমন আরো অনেকে কমেন্ট এর মাধ্যমে তাদের মতামত জানাচ্ছেন এবং এমন নেক্কারজনক কাজের জন্য আয়োজককে ক্ষমা চাওয়ার জন্যও বলছেন। এই বিষয়ে কর্নেট সাংস্কৃতিক সংসদের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম প্রবাল বলেন, যারা গানের যন্ত্র ব্যবহার করছিল আর্থিং এর জন্য তারা জুতা পরে ছিল। তবে তারা মূল বেদির পরের বেদিতে জুতা পরে ছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *