থানায় এসে ১৩ বছরের মেয়ের ধর্ষণ মামলা, বাবা ও তার বন্ধু কারাগারে

হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে নিজের মেয়েকে ধর্ষণ করেছে বাবা। এ ঘটনায় বাবা তার এক বন্ধুকে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ। বুধবার বিকেলে তাদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।
মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে বাবার বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে থানায় হাজির হন ১৩ বছর বয়সী কিশোরী। ওই রাতেই র‌্যাব অভিযুক্তদের আটক করে।

ঘটনাটি ঘটেছে চুনারুঘাট উপজেলার আলীনগর গ্রামে। অভিযুক্তরা হলেন- একই গ্রামের ৪০ বছর বয়সী খলিল মিয়া ও বালুমারা গ্রামের ৩৫ বছর বয়সী আব্দুল হক।

ধর্ষণের শিকার মেয়েটি পুলিশকে জানায়, সে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত লেখাপড়া করেছে। পরবর্তী সময়ে তার বাবা তার লেখাপড়া বন্ধ করে দেন।

ভুক্তভোগী কিশোরী জানায়, তার বাবা মালয়েশিয়া প্রবাসী। এক বছর আগে দেশে আসার পর করোনার কারণে মালয়েশিয়া যেতে পারেনি। তখন থেকেই তার মায়ের সঙ্গে দাম্পত্য কলহ শুরু হয়। তার মায়ের ওপর চালানো হয় অমানবিক নির্যাতন।

এক পর্যায়ে নির্যাতন সইতে না পেরে কিশোরীর মা তার বাবার বাড়িতে চলে যায়। এই সুযোগে এক সপ্তাহ ধরে তার বাবা বন্ধুকে নিয়ে অমানবিক নির্যাতন চালায় তার ওপর। এক পর্যায়ে সে বাধ্য হয়ে নির্যাতনের বিষয়টি তার দাদিকে জানায়।

চুনারুঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলী আশরাফ জানান, এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। ভিকটিমকে ডাক্তারি পরিক্ষার জন্য হবিগঞ্জ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *