পানির নিচে হাইওয়ে টানেল চালু করল চীন

চীনে পানির নিচে নির্মিত দীর্ঘতম হাইওয়ে টানেল যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে। এর দৈর্ঘ্য ১০ দশমিক ৭৯ কিলোমিটার (৬ দশমিক ৬৫ মাইল)।

এটি নির্মাণ করতে লেগেছে প্রায় চার বছর। এজন্য ব্যয় হয়েছে ১৫৬ কোটি মার্কিন ডলার, বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৩ হাজার ৪৪১ কোটি ৬৭ লাখ টাকা।

বৃহস্পতিবার (৩০ ডিসেম্বর) দেশটির দীর্ঘতম এই টানেলটি খুলে দেওয়ার তথ্য দিয়েছেন দেশটির স্থানীয় সংবাদমাধ্যম। চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম শিনহুয়াকে জিয়াংসু প্রদেশের সরকারি কর্মকর্তারা জানান, ২০১৮ সালের ৯ জানুয়ারি দ্বিমুখী টানেলটির নির্মাণ কাজ শুরু হয়। এতে রয়েছে ছয় লেন। এটি ১৭ দশমিক ৪৫ মিটার চওড়া।

২০ লাখ ঘনমিটারের বেশি কংক্রিট ব্যবহার করা হয়েছে এতে। গাড়িচালকদের একঘেঁয়েমি রোধে টানেলের সিলিং রঙ-বেরঙের এলইডি লাইট দিয়ে সাজানো হয়েছে।

পানির নিচে সবচেয়ে দীর্ঘ হাইওয়ে টানেল নরওয়ের টুইন-রোড রাইফাস্ট। দেশটির স্টাবাঙ্গার শহর ও স্ট্রান্ড পৌরসভার মধ্যকার টানেলটির দৈর্ঘ্য ১৪ দশমিক ৩ কিলোমিটার। এছাড়া পানির নিচে যানচলাচলের মহাসড়ক টোকিও বে অ্যাকুয়া-লাইনের দৈর্ঘ্য ৯ দশমিক ৬ কিলোমিটার। সড়ক ও রেলপথ মিলিয়ে সবচেয়ে দীর্ঘ টানেল ইংল্যান্ড ও ফ্রান্সের মধ্যকার চ্যানেল টানেল। এর দৈর্ঘ্য ৩৭ দশমিক ৯ কিলোমিটার।

তাইহু টানেল নামে পরিচিত এই হাইওয়ে টানেল চীনের পূর্বাঞ্চলীয় জিয়াংসু প্রদেশে অবস্থিত। তাইহু হৃদের তলদেশে নির্মিত এই টানেল ১০ দশমিক ৭৯ কিলোমিটার দীর্ঘ। আর উচ্চতা সাত দশমিক ২৫ মিটার। তাইহু টানেলটি মূলত ৪৩ দশমিক নয় কিলোমিটার দীর্ঘ চাংঝো- উক্সি মহাসড়কের অংশ, যা বৃহস্পতিবার যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, পানির নিচে এই টানেল নির্মাণের কাজ শুরু হয় ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে। টানেলটিতে স্বয়ংক্রিয় ইস্পাত প্রক্রিয়াকরণ সরঞ্জাম এবং ইন্টেলিজেন্ট সিস্টেম ব্যবহার করা হয়েছে, যার ফলে এই টানেলে কোনো ধুলোকণা উড়বে না। তাইহু লেক হলো চীনের তৃতীয় বৃহত্তম মিঠা পানির হৃদ। চীনের সাংহাই থেকে ৫০ কিলোমিটার পূর্বে জিয়াংসু প্রদেশের তাইহু হ্রদের নিচে গড়ে তোলা হয়েছে দেশটির সবচেয়ে এই দীর্ঘ টানেল।

এর মাধ্যমে সাংহাই ও জিয়াংসুর রাজধানী নানজিংয়ের মধ্যে যাতায়াতে ভ্রমণকারীরা বিকল্প এক্সপ্রেসওয়ে পেয়েছে। সুজো, উশি এবং চংজোর এক্সপ্রেসওয়েগুলোকে সংযুক্ত করেছে এটি। তাইহু হ্রদের পাশের শহরগুলোর ওপর ট্রাফিক চাপ কমাতে এই টানেল তৈরি হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *